প্রযুক্তির খবর

বায়োমেট্রিক কী? বায়োমেট্রিক কত ধরণের?

বর্তমান বিশ্বে বায়োমেট্রিক বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। স্কুল, কলেজ থেকে শুরু করে অফিস, আদালত গুলো হাজিরা বা নিরাপত্তায় বায়োমেট্রিক ব্যবহার করছে। বায়োমেট্রিক এখন পাসওয়ার্ড বা পিন নম্বরের প্রতিস্থাপন হিসেবে ব্যবহৃত হয়। আজকের ব্লগে বায়োমেট্রিক সম্পর্কিত বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

বায়োমেট্রিক কী?

বায়োমেট্রিক হলো বায়োলজিক্যাল অর্থাৎ, জৈবিক ডাটা পরিমাপ এবং বিশ্লেষণ করার প্রযুক্তি। সহজ ভাষায়, বায়োমেট্রিক হলো আমাদের শরীরের অনন্য বৈশিষ্ট্য ব্যবহার করে ব্যক্তি সনাক্তকরণের একটি প্রযুক্তি। এই প্রযুক্তিতে মানুষের শরীরের বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য ব্যবহার করে তার সনাক্তকরণ করে। 

বায়োমেট্রিক কত ধরণের?

বায়োমেট্রিক দুই ধরণের বৈশিষ্ট্য ব্যবহার করে। যথা- শারীরিক বৈশিষ্ট্য ও আচরণগত বৈশিষ্ট্য।

শারীরিক বৈশিষ্ট্য

বায়োমেট্রিকে আমাদের শরীরের অনন্য বৈশিষ্ট্য ব্যবহার করে ব্যক্তি সনাক্ত করে। অনন্য বৈশিষ্ট্য অর্থাৎ যে সকল বৈশিষ্ট্য অন্যের থেকে আলাদা। যে সকল অনন্য শারীরিক বৈশিষ্ট্য ব্যবহার করা হয় সেগুলো হল- 

১। আঙ্গুলের ছাপ

এটি বায়োমেট্রিক সনাক্তকরণের সবচেয়ে সাধারণ পদ্ধতি। প্রতিটি ব্যক্তির আঙ্গুলের ছাপ অনন্য। এই প্রযুক্তি তা স্ক্যান করে ব্যক্তিকে সনাক্ত করে।

২। চোখের আইরিস এবং রেটিনা 

চোখের আইরিস এবং রেটিনাও অনন্য বৈশিষ্ট্য ধারণ করে। আইরিস স্ক্যান প্রযুক্তি চোখের আইরিসের নকশা স্ক্যান করে, এবং রেটিনা স্ক্যান প্রযুক্তি রেটিনার রক্তনালীর নকশা স্ক্যান করে ব্যক্তিকে সনাক্ত করে।

৩। মুখের মুখাবয়ব 

মুখের মুখাবয়ব সনাক্তকরণ প্রযুক্তি ব্যক্তির মুখের বিভিন্ন বৈশিষ্ট্য, যেমন চোখ, নাক, মুখের আকৃতি ইত্যাদি বিশ্লেষণ করে তাকে সনাক্ত করে।

৪। হাতের আকৃতি

হাতের আকৃতি সনাক্তকরণ প্রযুক্তি ব্যক্তির হাতের আকার এবং আঙ্গুলের দৈর্ঘ্যের অনুপাত বিশ্লেষণ করে তাকে সনাক্ত করে।

৫। ডিএনএ 

ডিএনএ আমাদের শরীরের সবচেয়ে অনন্য বৈশিষ্ট্য। ডিএনএ স্ক্যান প্রযুক্তি ব্যক্তির ডিএনএ প্রোফাইল তৈরি করে এবং তা অন্যদের সাথে মিলিয়ে তাকে সনাক্ত করে।

আচরণগত বৈশিষ্ট্য

বায়োমেট্রিকে আমাদের আচরণগত অনন্য বৈশিষ্ট্য ব্যবহার করে ব্যক্তি সনাক্ত করে। সেসকল আচরণগত বৈশিষ্ট্য হল-

১। কণ্ঠস্বর:

কণ্ঠস্বর সনাক্তকরণ প্রযুক্তি ব্যক্তির কণ্ঠস্বরের নকশা বিশ্লেষণ করে তাকে সনাক্ত করে।

২। টাইপিং পদ্ধতি:

টাইপিং পদ্ধতি সনাক্তকরণ প্রযুক্তি ব্যক্তির টাইপ করার সময় কিবোর্ডে চাপ দেওয়ার ধরণ বিশ্লেষণ করে তাকে সনাক্ত করে।

৩। হাঁটার ধরন:

হাঁটার ধরন সনাক্তকরণ প্রযুক্তি ব্যক্তির হাঁটার সময় শরীরের গতিবিধি বিশ্লেষণ করে তাকে সনাক্ত করে।

বায়োমেট্রিক প্রযুক্তির ব্যবহার

Biometric প্রযুক্তি বিভিন্ন ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়। যেমন-

  1. অ্যাক্সেস নিয়ন্ত্রণ: ভবন, কম্পিউটার, এবং অন্যান্য সুরক্ষিত এলাকায় প্রবেশ নিয়ন্ত্রণ করতে।
  2. হাজিরা: কর্মীদের হাজিরা পর্যবেক্ষণ করতে।
  3. আইন প্রয়োগকারী: অপরাধীদের সনাক্ত করতে এবং তদন্ত করতে।
  4. সীমান্ত নিয়ন্ত্রণ: দেশে প্রবেশকারীদের সনাক্ত করতে।
  5. অনলাইন লেনদেন: অনলাইন লেনদেনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে।

বায়োমেট্রিক প্রযুক্তির সুবিধা

Biometric প্রযুক্তি ব্যবহারের অনেক সুবিধা রয়েছে। এর উল্লেখযোগ্য কিছু সুবিধা হল-

  1. জালিয়াতি প্রতিরোধ: পাসওয়ার্ড বা অন্যান্য ঐতিহ্যবাহী পদ্ধতির তুলনায় বায়োমেট্রিক বৈশিষ্ট্যগুলো জাল করা অনেক কঠিন। কারণ এগুলো অনন্য এবং ব্যক্তির সাথে স্থায়ীভাবে যুক্ত। এর ফলে অনধিকৃত ব্যক্তিদের অ্যাক্সেস প্রদানের ঝুঁকি হ্রাস পায়।
  2. উচ্চ নির্ভুলতা: বেশিরভাগ বায়োমেট্রিক সিস্টেম খুব নির্ভুল, যার ফলে ভুল সনাক্তকরণের সম্ভাবনা কম থাকে।
  3. ব্যবহারকারীর সুবিধা: পাসওয়ার্ড মনে রাখা বা টাইপ করার প্রয়োজনীয়তা দূর করে ব্যবহারকারীদের জন্য সুবিধাজনক।
  4. দ্রুত এবং সহজেই সনাক্ত করতে পারে, যা প্রবেশ নিয়ন্ত্রণ এবং অন্যান্য অ্যাপ্লিকেশনের জন্য লাইন কমাতে সাহায্য করে।
  5. ব্যবহারকারীদের ম্যানুয়ালি তথ্য প্রদান করার প্রয়োজনীয়তা দূর করে প্রক্রিয়াগুলি স্বয়ংক্রিয় করতে পারে।
  6. বড় সংখ্যক ব্যবহারকারীদের জন্য সহজেই স্কেল করা যায়।
  7. খরচ কম: দীর্ঘমেয়াদে, ঐতিহ্যবাহী পদ্ধতির তুলনায় বায়োমেট্রিক সিস্টেমগুলির খরচ কম হতে পারে, কারণ পাসওয়ার্ড রিসেট এবং অন্যান্য নিরাপত্তা সমস্যাগুলির সাথে যুক্ত খরচ হ্রাস পায়।
  8. পরিবেশগত বান্ধব: পাসওয়ার্ড রিসেটের জন্য কাগজ ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা কমিয়ে পরিবেশের উপর ইতিবাচক প্রভাব ফেলতে পারে।
  9. পাসওয়ার্ড মনে রাখা বা টাইপ করার প্রয়োজন নেই।
  10. ব্যবহারকারীর জবাবদিহিতা বৃদ্ধি করে।

বায়োমেট্রিক প্রযুক্তির অসুবিধা

Biometric প্রযুক্তি নিখুঁত নয়। কিছু সম্ভাব্য অসুবিধা রয়েছে যা ব্যবহারের পূর্বে বিবেচনা করা উচিত। যেমন:

  1. গোপনীয়তা ঝুঁকি।
  2. ডেটা নিয়ন্ত্রণের অভাব।
  3. সংবেদনশীল ডেটা সংগ্রহ।
  4. যেকোনো প্রযুক্তিগত ব্যবস্থার মতো, বায়োমেট্রিক সিস্টেম ত্রুটি করতে পারে। এর ফলে ভুল সনাক্তকরণ, অস্বীকার এবং অন্যান্য সমস্যা হতে পারে।
  5. কিছু শারীরিক অবস্থা বা পরিবেশগত কারণ বায়োমেট্রিক সিস্টেমের কার্যকারিতা প্রভাবিত করতে পারে। যেমন- শুষ্ক আঙ্গুল আঙ্গুলের ছাপ স্ক্যানার ব্যবহার করা কঠিন। এবং উজ্জ্বল আলো মুখের সনাক্তকরণ সফ্টওয়্যারকে বিভ্রান্ত করতে পারে।
  6. বায়োমেট্রিক সিস্টেমগুলি ট্র্যাডিশনাল নিরাপত্তা পদ্ধতির তুলনায় বেশি ব্যয়বহুল হতে পারে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
error: Content is protected !!