অন্যান্যমোবাইল টিপস

Android App কিভাবে বানানো যায়? অ্যাপ তৈরি করার নিয়ম

আপনি যদি এই মুহূর্তে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ তৈরি করে ইনকাম করার কথা ভেবে থাকেন তবে অবশ্যই প্রথমে আপনাকে জানতে হবে যে কিভাবে একটি Android App বানানো যায়। কিন্তু আপনি যদি সেটি না জানেন এবং এই মুহূর্তে এই আর্টিকেলটি পড়ে থাকেন তবে আমি বলব আপনি একদম ঠিক জায়গাতেই এসেছেন। কেননা আজকের এই আর্টিকেলটিতে আমরা  কিভাবে কোনো কোডিং ছাড়াই ফ্রিতে একটি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ বানানো যায় এবং অ্যাপ থেকে ইনকাম করা যায় সম্পর্কে বিশদ আলোচনা করতে চলেছি। সুতরাং পুরো আর্টিকেল জুড়ে সাথে থাকুন এবং এর কোনো অংশকে স্কিপ করে যাবেন না।

কিভাবে একটি Android App বানানো যায়?

বন্ধুরা! মোটামুটি আমাদের প্রায় সকলের একটি কমন ধারণা রয়েছে যে একটি অ্যাপ তৈরি করতে গেলে অবশ্যই প্রোগ্রামিং নলেজ থাকতে হয়। কম করে হলেও JAVA সম্পর্কে ভালো ধারণা রাখতে হবে। নতুবা একটি অ্যাপ তৈরি করা সম্ভব হবে না।

কিন্তু যদি এরকম হয় আপনি কোডিং কিংবা প্রোগ্রামিং ভাষা সম্বন্ধে কিছুই জানেন না বা এ সম্পর্কে আপনার কোনো ধারণাই নেই , তবুও আপনি একটি অ্যাপ বানাতে চান। তাহলে সেটা কি করে সম্ভব? হ্যাঁ , এটা অবশ্যই সম্ভব। আপনার যদি কোডিং সম্পর্কে কোনো নলেজ নাও থাকে তবুও আপনি একটি অ্যাপ নিজে নিজে বানিয়ে নিতে পারবেন এবং তাও সম্পূর্ণ ফ্রিতে। 

হ্যাঁ বন্ধুরা! আজকের আর্টিকেল এ আমরা সে বিষয়েই আলোচনা করতে চলেছি যে কিভাবে কোডিং ছাড়াই একটি অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ বানাবেন যায় এবং সেই অ্যাপ দিয়ে ইনকাম করবেন।

তাহলে চলুন আর কথা না বাড়িয়ে মূল কথায় যাওয়া যাক।

কিভাবে ফ্রিতে Android App বানাবেন

বন্ধুরা! এই মুহূর্তে আমি আপনাদের সঙ্গে আলোচনা করতে চলেছি এমন কয়েকটি ওয়েবসাইট সম্পর্কে যেগুলো দিয়ে আপনি খুব সহজেই ফ্রিতে মোবাইল দিয়ে যে কোনো Android App বানাতে পারবেন এবং সেক্ষেত্রে আপনার কোনো প্রোগ্রামিং ভাষা বা কোডিং এর কোনো প্রয়োজন হবে না। 

বর্তমানে ইন্টারনেটে এরূপ অসংখ্য ওয়েবসাইট রয়েছে যেগুলো দিয়ে কোডিং ছাড়াই ফ্রিতে app বানানো যায়। তবে কার্যকারিতার দিক থেকে সবগুলো একরকম নয়। আজকের এই আর্টিকেলটিতে আমি সেসব ওয়েবসাইটগুলোর মধ্য থেকে বেস্ট তিনটি ওয়েবসাইট নিয়ে আলোচনা করব।

তাহলে চলুন দেখে নেয়া যাক ওয়েবসাইট তিনটি কি কি এবং এগুলো দিয়ে কিভাবে অ্যাপ বানানো যায়।

মোবাইলে ফ্রিতে Android App বানানোর সেরা তিনটি ওয়েবসাইট

যে কোনো ওয়েবসাইটকে অ্যাপ এ কনভার্ট করার জন্য Appyet.com যে কারোর জন্য বেস্ট অপশন হতে পারে। এটি ব্যবহার করে অনেক সহজে একটি ব্লগসাইট বা ওয়েবসাইটকে অ্যাপ্লিকেশনে রূপান্তর করা যায় এবং সম্পূর্ণ ফ্রিতে কোনো কোডিং নলেজ ছাড়াই যে কেউ এই অ্যাপ বানাতে পারবে। বিশেষত এই ওয়েবসাইটটি যেকোনো ব্লগসাইট বা ওয়েবসাইটকে app এ রূপান্তর করার জন্যই ডেভলপ করা হয়েছে। 

কেননা, বর্তমানে স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের মধ্যে অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারের যে বিপুল চাহিদা রয়েছে তাকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন কোম্পানি ও অন্যান্য সাধারণ মানুষ তাদের ব্লগসাইট বা ওয়েবসাইটগুলোকে অ্যাপ এ রুপান্তরিত করে বাড়তি আয় করার সুযোগ খুঁজছেন। তাই অন্য সবার মত আপনিও আর দেরি না করে আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগসাইটকে Appyet.com থেকে অ্যাপ এ রুপান্তর করে টাকা ইনকাম করা শুরু করে দিন।

ফ্রিতে মোবাইলে যে কোনো ধরনের Application তৈরি করতে Mobincube ওয়েবসাইটটির কোনো বিকল্প আপনি খুঁজে পাবেন না। এখান থেকে খুব সহজে কোনো প্রকার কোডিং ছাড়াই যে কোনো Android App বানিয়ে নেয়া যায়। তাছাড়া Android App এর পাশাপাশি এখান থেকে আপনি উইন্ডোজ app এবং আরও অন্যান্য অপারেটিং সিস্টেম অ্যাপ ফ্রিতে বানাতে পারবেন।

এমনকি অ্যাপ বানানোর পাশাপাশি Mobincube এর মনিটাইজেশন অপশন ওপেন করে অ্যাপে বিজ্ঞাপন চালিয়ে সেখান থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

তাছাড়া এই অ্যাপগুলি কে আবার play store এ আপলোড করে Google Admob এর মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করা সম্ভব। অর্থাৎ Mobincube থেকে আপনি যেমন সুন্দর অ্যাপ্লিকেশন ফ্রিতে বানিয়ে নিতে পারবেন পাশাপাশি সেই অ্যাপগুলো দিয়া টাকা ও আয় করতে পারবেন।

এক্ষেত্রে প্রথমে আপনাকে ওয়েবসাইটটিতে যেয়ে Sign up করে নিতে হবে। এরপর আপনি ইচ্ছামতো যেকোনো সময় যেকোনো ধরনের স্টাইলিশ ও অ্যাডভান্স মোবাইল অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস বানাতে পারবেন।

আপনি যদি একটিমাত্র ওয়েবসাইট থেকে একাধিক সুবিধা পেতে চান তবে Appsgeyser ওয়েবসাইটটি আপনার জন্য। 

এখান থেকে আপনি যেমন ব্লগসাইট বা ওয়েবসাইটকে app এ ট্রান্সফার করার সুযোগ পাবেন তেমনি আরও কিছু ভিন্ন ধরনের ওয়েবসাইট তৈরি করার সুবিধা পাবেন। যেমন- ফটো এডিটিং app , ভিডিও ডাউনলোডার app , ম্যাসেঞ্জার app , গেমিং app , ওয়েব ব্রাউজার app , টিউটোরিয়াল app ইত্যাদি। 

বর্তমানে ইন্টারনেটে এই ধরনের অ্যাপ গুলোর ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। যে কারণে এই অ্যাপ গুলো তৈরি করে ইনকাম করাটা খুবই সহজ ও ফলপ্রসূ। তাই আর দেরি না করে এখনি Appsgeyser থেকে নিজের পছন্দের যেকোনো অ্যাপ বানিয়ে নিন এবং আর্নিং শুরু করে দিন।

কিভাবে App বানিয়ে ইনকাম করবেন ?

বন্ধুরা! ইতিমধ্যে আমরা জেনেছি কিভাবে মোবাইলে ফ্রিতে কোডিং ছাড়া android apps বানানো যায়। তাই এখন আমরা জানবো যে কিভাবে আপনার এসব তৈরিকৃত অ্যাপস দিয়ে ইনকাম করতে পারবেন। 

তো অ্যাপ দিয়ে ইনকাম করার জন্য আপনাকে যা যা করতে হবে:

  • প্রথমে আপনার অ্যাপকে গুগল play store এ পাবলিশ করার জন্য প্রদান করুন।
  • এক্ষেত্রে অ্যাপ পাবলিশ করার জন্য Google Play Store Console এ যেয়ে রেজিস্টার করুন।
  • এরপর Google Admob ব্যবহার করে অ্যাপে বিজ্ঞাপন দিন।
  • মনে রাখবেন , মূলত এই বিজ্ঞাপনগুলো হলো আপনার অ্যাপ এর মূল আর্নিং সোর্স। আপনার অ্যাপটি যত বেশি সংখ্যক মানুষ ব্যবহার করবে এই বিজ্ঞাপনগুলো তত বেশি চলবে এবং আপনার ইনকাম ও ঠিক ততটাই বেশি হবে।

সুতরাং প্রিয় পাঠকবৃন্দ! আশা করি আপনাদের বুঝাতে পেরেছি যে app থেকে আসলে কিভাবে ইনকাম করা যায়। 

এখন আপনার মনে প্রশ্ন আসতে পারে যে কেন অ্যাপ দিয়ে ইনকাম করবেন বা এখানে সফলতার সম্ভাবনা ঠিক কতটুকু? 

তো বন্ধুরা! চিন্তার কোনো কারণ নেই। এই আর্টিকেলটিতেই এই বিষয়টি আমি আপনাদের সম্পূর্ণ ক্লিয়ার করে বুঝানোর চেষ্টা করব ইনশাল্লাহ্।

কেন অ্যাপ দিয়ে ইনকাম করবেন?

বর্তমান বিশ্বে স্মার্টফোন ব্যবহার করেন না এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া ভার। আর এ সকল স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের মধ্যে অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করাটা খুবই জনপ্রিয় একটি ব্যাপার। কেননা নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন কাজকর্ম বিভিন্ন স্পেসিফিক অ্যাপ্লিকেশন এর সাহায্যে সহজেই সম্পাদনা করা যায়।

যেমন- মোবাইলের ফ্লাশ , ক্যালেন্ডার , ক্যালকুলেটর , অনলাইন ম্যাসেজিং অ্যাপস ইত্যাদি খুবই জনপ্রিয় ও প্রয়োজনীয় অ্যাপস। এসবের ব্যবহার প্রতিনিয়ত অনের উচ্চহারে বৃদ্ধি পাচ্ছে। কেউবা একই অ্যাপ এর একাধিক ফিচার ব্যবহার করছেন। যেমন- দেখা গিয়েছে যে একজন ব্যবহারকারী তার মোবাইলে ছবি তোলা ও ছবি এডিটিং এর জন্য একইসঙ্গে Beauty plus , You cam perfect বা B612 ইত্যাদি অ্যাপগুলো ব্যবহার করছেন। যে কারণে মূলত মার্কেটে বিভিন্ন অ্যাপ্লিকেশনের চাহিদা এত উচ্চ হারে বৃদ্ধি পেয়েছ এবং প্রধানত এই popularity- কে কাজে লাগিয়ে অ্যাপ বানিয়ে ইনকাম করার পথটি উন্মুক্ত হয়েছে।

তাছাড়া যতই দিন গড়াবে অ্যাপ্লিকেশনস ব্যবহারের হার স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের মাঝে ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পেতে থাকবে। এই হার কখনো হ্রাস পাবার চান্স খুবই ক্ষীণ। তাই বলবো যে কেউ মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয়তাকে কাজে লাগিয়ে সুন্দর ব্যবহার উপযোগী ও আকর্ষণীয় ইন্টারফেস যুক্ত অ্যাপস বানিয়ে এবং সেগুলোতে বিজ্ঞাপন লাগিয়ে পাবলিশ করে যথেষ্ট পরিমাণ টাকা ইনকাম করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে একটি অ্যাপ যত বেশি বার ইন্সটল করা হবে সেটি থেকে তত বেশি ইনকাম আসতে থাকবে।

ইতিকথা

প্রিয় পাঠকবৃন্দ! এতক্ষণ আমরা জানলাম কি করে মোবাইলে ফ্রিতে একটি Android App বানানো যায় এবং সে অ্যাপ দিয়ে ইনকাম করা যায়। তো আশা করি এ সম্পর্কিত প্রয়োজনীয় সকল তথ্য আপনাদের দিতে পেরেছি। 

তবে মনে রাখবেন প্রতিটি কাজের জন্যই প্রয়োজন যথেষ্ট পরিমাণ ধৈর্য্য , কাজের প্রতি একাগ্রতা , অধ্যবসায় ও বিশ্বাস। তাই বলব ধৈর্য ধরে কাজ করুন এবং লেগে থাকুন। কেননা এখান থেকেও সফলতা আসা সম্ভব।

ধন্যবাদ।

আপনি কি মোবাইল আসক্তিতে ভুগছেন? জেনে নিন, মোবাইল ফোন থেকে দূরে থাকার উপায়

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
error: Content is protected !!