প্রযুক্তির খবরফেসবুক টিপস

Facebook বন্ধ থাকলে কি কি হতে পারে

হ্যালো বন্ধুরা, আপনারা কি কখনো এমনটা চিন্তা করেছেন যে, এক দিনের জন্য ফেইসবুক বন্ধ হলে কি কি আশ্চর্যকর ঘটনা ঘটতে পারে? আমাদের বাস্তব জীবনে চলাচল সহ কর্ম জীবনে কি ধরনের আমুল পরিবর্তন লক্ষ্য করা যেতে পারে? আপনি হয়ত এমনটা কখনো চিন্তা করেননি এবং ফেইসবুক ছাড়া আপনি কিভাবে অবসর সময় কাঠাতে পারেন সেটা চিন্তা করে দেখেননি। আমাদের মধ্যে অনেকে রয়েছে যারা ফেইসবুক বন্ধ হওয়ার বিষয়টি চিন্তাও করেননি বা ফেইসবুক ছাড়া নিজেকে কল্পনা করতে পারেন না।
ইন্টারনেট ও সোসিয়াল মিডিয়ার যুগে ফেইসবুক আমাদের শিরা উপশিরার মধ্যে স্থান করে নিয়েছে। স্মার্টফোনের সহজলভ্যতার কারনে ফেইসবুক প্রতিনিয়ত আমাদের মস্তিস্কের চিন্তা শক্তির মধ্যে জায়গা করে নিয়েছে। আমাদের অবস্থা এমন হয়েছে যে, আমরা যত ধরনের গুরুত্বপূর্ণ কাজের মধ্যে ব্যস্ত থাকি না কেন প্যান্টের সাইড পকেটে রাখা স্মার্ট ফোনে ফেইসবুকের নটিফিকেশনের আওয়াজ শুনতে পেলে মুহুর্ত কাজ ভূলে ফেইসবুকের নটিফিকেশন চেক করার জন্য মনোযোগি হয়ে পড়ি।

 

তাছাড়া পারিবারিক জীবনে ফেইসবুক আমাদের মধ্যে এমনভাবে স্থান করে নিয়েছে যে, অফিস থেকে ফিরার পর একজ স্বামী তার স্ত্রীকে অথবা স্ত্রী তার স্বামীকে সময় দেওয়ার পরিবর্তে সাংসারিক লাইফ ভূলে স্বামী স্ত্রী উভয়ই যার যার মত স্মার্ট ফোনে ফেইসবুক নিয়ে বসে থাকেন। যার ফলে স্বামী স্ত্রী কেউ বুঝতে সক্ষম হন না ফেইসবুক থার্ড পার্টি হিসেবে তাদের মধ্যে আন্তরিকতা ও ভালোবাসা কমিয়ে দিচ্ছে।

আমাদের মধ্যে ফেইসবুক আসক্তি ক্রমান্বয়ে এতটাই কঠিন থেকে কঠিনতর হয়ে চলেছে যে, আমরা ফেইসবুক ছাড়া এক দিনের জন্য হলেও মুক্তভাবে চলার চিন্তা করতে পারি না। ফেইসবুকের মালিক (CEO) মিস্টার মার্ক জুকারবার্গ আমাদের সেই আসক্তি যাতে বিরক্তিতে পরিনত না হয় সে জন্য নিত্য নতুন কৌশল অবলম্বন করার পাশাপাশি কিভাবে ফেইসবুক থেকে মানুষ টাকা ইনকাম করতে পারে সেই সুযোগ করে দিয়েছেন। এতেকরে ফেইসবুকের প্রতি মানুষের মনোযোগ হ্রাস হওয়ার পরিবর্তে আসক্তি দিন দিন বেড়েই চলেছে।

Facebook কি পরিমান আয় করছে?

সাধারণত ফেইসবুক প্রতি তিন মাস অন্তর অন্তর তাদের আয়ের পুরিপূর্ণ রিপোর্ট প্রকাশ করে থাকে অর্থাৎ বছরের মোট চার বার তিন মাস হিসেব করে ইনকামের পরিমান প্রকাশ করে। ফেইসবুক সর্বশেষ ২০১৮ সালের অক্টোবর, নভেম্বর ও ডিস্বের মাসের আয়ের হিসাব প্রকাশ করে। নিচে তাদের আয়ের পরিমান আপনাদের জ্ঞাতার্থে প্রকাশ করে দিলাম।

  • তিন মাসের মোট আয় ১৬.৯১ বিলিয়ন ডলার।
  • প্রতি শেয়ারে আয় ২.৩৮ ডলার।
  • প্রতিদিনের একটিভ ইউজার ১.৫২ বিলিয়ন।
  • মাসিক একটিভ ইউজার ২.৩২ বিলিয়ন।
এক দিনের জন্য Facebook বন্ধ হলে কি কি ঘটতে পারে?

Facebook এক দিন বন্ধ থাকলে কি কি হতে পারে?

মূলত আমি সহ আমার ঘনিষ্ট বন্ধু বান্ধবদের ফেইসবুক এর প্রতি মনোযোগ ও আসক্তি দেখে এই টপিকটি লিখার জন্য আমার মাথায় কনসেপ্ট আসে। এই বিষয়ে লেখার পূর্বে আমার কয়েকজন কলিগের মথামত নিয়েছিলাম যে, এক দিনের জন্য ফেইসবুক বন্ধ হলে কি কি ঘটতে পারে? আমার কলিগের অনেকে এ বিষয়ে বিভিন্ন পয়েন্ট তুলে ধরেন। তাদের সেই আইডিয়াগুলো এই পোস্টটি লিখার পথ আমাকে সহজ করে দেয়। এক দিনের জন্য ফেইসবুক বন্ধ হলে কি কি ঘটতে পারে তার কয়েকটি পয়েন্ট আমরা তুলে ধরব।

  1. প্রথমত ফেইসবুক এর মালিক মার্ক জুকারবার্গ এর হাত প্যান্টের প্যাকেট থেকে কপালে উঠে আসবে। কারণ ফেইসবুক এক দিনে প্রায় ১.২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ইনকাম করে। এত মোটা অংকের ডলার আয় করার সহজ ‍সুযোগ হাত ছাড়া হওয়াটা তাদের জন্য স্বাভাবিক হবে না।
  2. ফেইসবুক এর সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ এক সাথে ছুটি পেয়ে খুশিতে আত্মহারা হয়ে উঠবে। কারণ এ ধরনের আইটি কোম্পানি কখনো এক সাথে তাদের সকল কর্মীদের ছুটি দেয় না।
  3. স্মার্ট ফোনের আসক্তি ও অপব্যবহার প্রায় ৮০% কমে যাবে। যার ফলে মোবাইলে ঘন ঘন চার্জ দেওয়ার প্রয়োজন হবে না। এক দিনের জন্য হলেও মোবাইল ফোনে বার বার চার্জ দেওয়ার মত বিরক্তিকর কাজ হতে রক্ষা পাওয়া যাবে।
  4. মোবাইল এর আলোক রশ্মি হতে চোখ রক্ষা পাবে। ফলে ফেইসবুক ব্যবহারকারীগন এক দিনের জন্য হলে সবকিছু স্বচ্ছ ও পরিষ্কার দেখতে পাবেন।
  5. মোবাইল ফোনে সেলফি তুলার প্রবনতা কমে যাবে। তার কারন হচ্ছে সবাই মূলত ফেইসবুকে ছবি আপলোডের জন্য বিভিন্ন স্টাইলে অঙ্গ ভঙ্গি করে সেলফি তুলে। এমনকি শুধুমাত্র ফেইসবুকে ছবি আপলোড করার জন্য বিভিন্ন ঝুকিপূর্ণ জায়গা থেকে সেলফি তুলতে গিয়ে মারা যাওয়ার মত বাস্তব ঘটনা রয়েছে।
  6. এক দিনের জন্য হলেও আমাদের জীবনে ২-৫ ঘন্টা সময় বেশী উপভোগ করতে পারব। এই সময়ে আমাদের বাস্তব জীবনের কাজ সহ অফিসের কাজ কর্মে বেশী মনোযোগি হয়ে উঠব।
  7. আপনার অজান্তেই অভ্যাসগতভাবে বার বার ফেইসবুক নটিফিকেশন চেক করার চেষ্টা করবেন। আপনি বার বার ফেইসবুকে প্রবেশ করবেন কিন্তু কোন নতুন পোস্ট দেখতে পাবেন না।
  8. কমিউনিকেশনের ক্ষেত্রে ব্যাপক পরিবর্তন আসবে। আপনার এমন কিছু ফ্রেন্ড রয়েছে যাদের সাথে শুধুমাত্র ফেইসবুকে যোগাযোগ হয়, কখনো মোবাইল কলের মাধ্যমে কথা হয় না, এমন বন্ধুদের সাথে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যাবে এবং আপনি তাদের খুব বেশী মিছ করবেন।
  9. ই-কমার্স সাইটগুলোর ট্রাফিক প্রচুর পরিমানে কমে যাবে। যার ফলে গুগল এ্যাডসেন্স ও অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর আয়ের পরিমান ব্যাপক হারে হ্রাস পাবে।
  10. নিউজ ও ম্যাগাজিন টাইপের অনলাইন পত্র পত্রিকার পাঠকের পরিমান অনেকাংশে কমে যাবে। এ ধরনের সাইটগুলো তাদের পাঠক হ্রাস পাওয়ার পরিমান দেখে হতাশ হবে।
  11. প্রতিবাদী লোকের সংখ্যা অতিমাত্রায় কমে যাবে। আর যে সকল প্রতিবাদী লোক থাকবে তাদের খোঁজ খবর পাওয়া যাবে না। কারণ বাস্তব জীবনে কেউ প্রতিবাদী না হলেও ফেইসবুকে আমরা সবাই প্রদিবাদী হয়ে থাকি বা প্রতিবাদি মনোভাবের লোক হিসেবে নিজেকে আত্মপ্রকাশ করার চেষ্টা করি।
  12. পাঠ্য পুস্তকের প্রতি ছাত্র ছাত্রীদের মনোযোগ বৃদ্ধি পাবে। বাসার অবসর সময়টুকুতে যখন আমরা ফেইসবুকিং করি সেই সময়টুকো বইয়ের পাথায় চোখ রাখার চেষ্টা করব।
  13. ফেইসবুক ছাড়া বাস্তব জীবনে আমরা সবাই বিখ্যাত কবি সাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদ স্যারের উপন্যাসের হিমু ও মিছির আলী। তাই আমরা ফেইসবুক ভূলে নিজেকে ‍হিমু ও মিছির আলী’র সাথে তুলনা করতে শুরু করব।
  14. ছাত্রদের অধ্যয়নের জন্য ফেইসবুক কমিউনিটি Ten Minute School এর মত অন্যান্য জনপ্রিয় ও শিক্ষণীয় প্লাটফর্ম থেকে শিক্ষা গ্রহনের সুযোগ হতে বঞ্চিত হবে। এই অবস্থা বেশী দিন চলতে থাকলে সব ছাত্র ছাত্রীরা বিভিন্ন লাইব্রেরী হতে বই সংগ্রহ করতে ব্যস্ত হয়ে পড়বে।
  15. আইমান সাদিক, সোলাইমান সুখ ও সালমান মুক্তাদির এর মত মটিভেশনাল স্পীকাররা তাদের জনপ্রিয়তা এক দিনের জন্য হলেও হারাবেন।
  16. ফেইসবুকে লেখক, কবি, সাহিত্যিক ও কলামিস্টগণ এক দিনের জন্য তাদের জনপ্রিয়তা হারাবেন। কারণ বর্তমান সময়ে নতুন কবি ও লেখকগণের আত্মপ্রকাশ ফেইসবুকের মাধ্যমেই হয়ে থাকে।
  17. বিভিন্ন অনলাইন ও অফলাইন পত্র পত্রিকায় ফেইসবুক বন্ধের খবর আলোড়ন সৃষ্টি করবে। বিভিন্ন ধরনের দৈনিক প্রত্রিকায় ফেইসবুক বন্ধের খবর প্রধান শিরোনামে চলে আসবে।
  18. টিভি সাংবাদিকরা ফেইসবুক বন্ধের বিষয়ে অতি মাত্রায় রিপোর্ট করবে। অনেক টিভিতে ফেইসবুক বন্ধের বিষয়ে চুলছেড়া বিশ্নেষন সহ টকশো এর আয়োজন করবে।
  19. টুইটার এ ফেইসবুক বন্ধের হেস ট্যাগ ছাড়া আর কিছুই দেখা যাবে না। এ ছাড়াও ইনস্টগ্রাম ও প্রিন্টারেস্ট এ ফেইসবুক বন্ধের বিষয়ে প্রচুর পরিমানে স্ট্যাটাস শেয়ার হবে।
  20. প্রত্যেক ইউটুবারগণ ফেইসবুক বন্ধের বিষয়ে ভিডিও তৈরি করে আপলোড করবেন। তারা এ বিষয়ে বিভিন্ন যুক্তিক ও অযুক্তিক কারন উপস্থাপন করবেন।
বন্ধুরা এ বিষয়ে লিখতে চাইলে আরো অনেক মজার মজার বিষয় শেয়ার করা যাবে। তবে আমি আর্টিকেল দীর্ঘ করে আপনার বিরক্তির কারন হতে চাচ্ছি না। কারণ আমরা পরিষ্কারভাবে বিশ্বাস করি যে, ফেইসবুক কখনো এক দিনের জন্য বন্ধ হবে না। কাজেই ফেইসবুক বন্ধ হলে উপরের সম্ভাব্য ঘটনার কোনটি আমরা বাস্তব জীবনের অনুভব করার সুযোগ পাব না।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button
error: Content is protected !!